অ্যান্ড্রয়েড ফোনগুলির জন্য ৮ টি মারাত্মক হ্যাকিং অ্যাপস! (২০১৮ সংস্করণ)

আজকের দিন এন্ড্রয়েড ফোন আমাদের দৈনন্দিন ব্যবহারের একটি ডিভাইস হয়ে চলেছে। আজকের দিনে এন্ড্রোইড ফোন ব্যবহার করতে পারে না, এমন মানুষ  খুঁজে পাওয়া যাবে না এবং আমরা অনেকেই এন্ড্রয়েড এর সহজে হ্যাকিং শিখতে চাই। তাই আমাদের প্রায় পাঠকদের জন্য আজকে কিছু হ্যাকিং টুলস বা এপপ্স নিয়ে আসলাম। এই লিস্টটি সম্পূন ভাবে ইউজার রেটিং এর ওপর ভিত্তি করে তৈরী করা, আসা করি আপনাদের ভালো লাগবে |

15 সেরা অ্যান্ড্রয়েড ফোনএর জন্য হ্যাকিং অ্যাপ্লিকেশন

1. AndroRAT AndroRAT 

AndroRAT অ্যাপস তৈরি করা হয় অ্যান্ড্রয়েড এবং রেট (Remote Administrative Tools) এর জন্য, এই টপ ফ্রি এন্ড্রোইড হ্যাকিং এপপ্সটি অনেক দিন হলো রিলিজ করা হয়েছে। এই এপপ্সটি আপনাকে এমন ক্ষমতা দেয় যে আপনি আপনার ভিক্টিমের অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস অনেক দূর থেকে, নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন। এই এপপ্সটি আপনার অ্যান্ড্রয়েড ফোন বুট হবার পরই অটোমেটিক একটিভ হয়ে যাই। তাই হ্যাকারকে বারবার ভিক্টিমের ফোনে হাত দিতে হয় না। এই অপ্প্সটিকে আপনি আপনার ফোন কল বা টেক্সট ম্যাসেজ দিয়েও ট্রিগার করতে পারবেন। দরুণ আপনি আমার ভিক্টিমের ফোনে কল বা ম্যাসেজ পাঠালেন এই এপপ্স তার পরই কাজ শুরু করে দেবে।

এই অ্যাপসটি ব্যবহার করে আপনি আপনার ভিকটিমের কন্টাক্ট, কল হিস্ট্রি, ম্যাসেজ এবং লোকেশন এর তথ্য কালেক্ট করতে পারবেন। আপনি প্রায় এই অ্যাপস দিয়ে একটি ফোনের সবকিছুই নিয়ন্ত্রন করতে পারবেন যেমন: ফোন কল, ম্যাসেজ পাঠানো, তার ফোন ব্যবহার করে ছবি তোলা, তার ব্রাউজারে যেকোনো ইউআরএল লিংক খুলা ইত্যাদি।

ডাউনলোড

 

2. Hackode Hackode

আমাদের এই টপ লিস্টে দ্বিতীয় অ্যাপস হলো Hackode। এটি একটি অ্যাপ যা মূলত একাধিক হ্যাকিং টুলস এর একটি প্যাকেজ। এই অ্যাপসটি যারা এথিকাল হ্যাকার্স, IT স্পেশালিস্টস, পেনিট্রেশন টেস্টার্স তারা ব্যবহার করে থাকে। এই অ্যাপসটিতে অনেক রকম টুলস দেয়া আছে। যেমন: রেকোননাইসেন্স, স্ক্যান, সিকিউরিটি ফিড ইত্যাদি।

এই অ্যাপ্লিকেশন দিয়ে, আপনি যেমন ফাঙ্কশনালিটিজ পেতে পাবেন, Google hacking, SQL Injection, MySQL Server, Whois, Scanning, DNS lookup, IP, MX Records, DNS Dif, Security RSS Feed, Exploits ইত্যাদি। এথিক্যাল হ্যাকিং শুরু করার জন্য এইটা একটি বলো এপপ্স এবং এই এপপ্সটি আপনার কোনো ব্যাক্তিগত তথ্য প্রয়োজন হয় না।

ডাউনলোড

 

3. zANTI

zANTI হ্যাকিং অ্যাপস তৈরি করেছে Zimperium নামের একটি কোম্পানি। এই সফ্টওয়ার্ট আপনাকে মাল্টিপল টুলস এর সুবিধা দিয়ে থাকে। যার সাহায্যে আপনি পেনিট্রেশন টেস্টিং করতে পারবেন। এই অ্যাপস এর সহজে আপনি আপনার নেটওয়ার্কে স্ক্যান করতে পারবেন এবং দেখতে পারবেন যে কোনো ত্রুটি আছে কি না। এই টুলকিটটি আইটি অ্যাডমিনিস্ট্রেটরদের একাধিক ক্ষতিকারক কৌশল সনাক্ত করতে একটি উন্নত হ্যাকিং পরিবেশের অনুকরণ করতে সাহায্য করে।

zANTI অ্যাপসটি আপনার ফোনে কালি লিনাক্স এর মতো শক্তি এনে দেয়। কালি লিনাক্স হলো কম্পিউটারের জন্য একটি হ্যাকিং অপারেটিং সিস্টেম। এই অ্যাপসটি আপনার নেটওয়ার্কের একটি ম্যাপ তৈরি করে দেয়। এটি আপনার ভিক্টিমের ফোন কোন ওয়েবসাইট ওপেন করেছে এবং তার কুকিজ সহো আপনাকে দিয়ে দিবে ।
এই অ্যাপসটির আরো কিছু বৈশিষ্ট্য

  • Network Mapping
  • Port Discovery
  • Sniffing
  • Acket Manipulation
  • DoS
  • MITM
ডাউনলোড

 

আরো পড়ুন:  সফটওয়্যার কি? সফটওয়্যারের প্রকার? সফটওয়ারগুলো তৈরী করে কে?

4. cSploit

cSploit নিজেকে অ্যান্ড্রয়েড অপারেটিং সিস্টেমের জন্য সবচেয়ে উন্নত এবং সম্পূর্ণ আইটি নিরাপত্তা টুলকিট বলে। এই টুলসটি একের ভেতর অনেক বৈশিষ্ট্য দেয়া আছে। যেমন: local hosts, finds vulnerabilities and their exploits, cracks Wi-Fi password, installs backdoors, ইত্যাদি।

ডাউনলোড

 

5. FaceNiff

FaceNiff একটি অ্যান্ড্রয়েড হ্যাকিং অ্যাপ্লিকেশন যা আপনাকে আপনার WiFi নেটওয়ার্ক ট্র্যাফিককে স্পর্শ এবং স্নিগ্ধ করতে সহায়তা করে। এই টুলস ব্যাপকভাবে আপনার অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইস ব্যবহার করে মানুষের ফেসবুক, টুইটার এবং অন্যান্য সামাজিক মিডিয়া ওয়েবসাইটের মধ্যে snoop করতে সক্ষম হয়। এই হ্যাকার-প্রিয় টুলটি WiFi হাকারকে ভিক্টিমের কুকিজ চুরি করে এবং একজন আক্রমণকারীকে ভিক্টিমের অ্যাকাউন্টে একাউন্টের অ্যাক্সেস দেয়।

ডাউনলোড

 

6. Shark for Root

Shark for Root নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞ এবং হ্যাকার জন্য একটি উন্নত টুলস। এই টুলসটি ট্রাফিক স্নিপার হিসাবে কাজ করে এবং এই অ্যাপসটি Wi-Fi, 3G, and FroYo tethered mode এ কাজ করতে পারে। Rooted অ্যান্ড্রয়েড ডিভাইসগুলির জন্য এই বিনামূল্যে হ্যাকিংয়ের অ্যাপ্লিকেশনের জন্য টিসিপিডপ কমান্ড ব্যবহার করতে পারবেন।

ডাউনলোড

 

7. Droidsheep

Wi-Fi নেটওয়ার্কগুলির সাথে খেলতে আগ্রহী নিরাপত্তা বিশ্লেষকদের জন্য উন্নত একটি কার্যকর হ্যাকিং অ্যাপ্লিকেশন। এই অ্যাপসটি আপনাকে ওয়েব সেশন হাইজ্যাকের ক্ষমতা প্রদান করতে পারে যেকোনো নেটওয়ার্কে। এটি প্রায় সব পরিষেবা এবং ওয়েবসাইটের সাথে কাজ করে।

আপনি এই অ্যাপসটির সহজে আপনার wi-fi নেটওয়ার্কে মনিটর করতে পারবেন এবং এটি আপনার নেটওয়ার্ক এর প্রোফাইলের সেশন নিয়ে আসতে পারে। এই অ্যাপসটির সাথে, আপনি আপনার wi-fi নেটওয়ার্কের যে কোনো ব্যবহারকারীর ফেসবুক, লিঙ্কডইন, টুইটার এবং অন্যান্য সামাজিক মিডিয়া অ্যাকাউন্ট হ্যাক করতে পারবেন।

DroidSheep Guard, আর একটি ভার্সন এর অ্যাপস, যেটি আপনাকে ARP-স্নোফিং ডিটেক্ট করতে সাহায্য করে। যদি কেউ আপনার নেটওয়ার্কে FaceNiff, Droidsheep, এবং অন্য কোনো অ্যাপস এর ব্যবহার করে এটিকে করে তাহলে আপনি এই অ্যাপস দেয়া ডিটেক্ট করতে পারবেন।

ডাউনলোড

 

8. DroidBox

DroidBox একটি অ্যাপ্লিকেশন যা অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ্লিকেশনগুলির ডাইনামিক এনালাইসিস প্রদান করে। অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করে, আপনি আপনার ভিক্টিমের ফোন থাকে এপ্লিকেশন প্যাকেজ, নেটওয়ার্ক ট্রাফিক, মেসেজেস এবং ফোন কল আরো নানা রকম ইনফরমেশন নিতে পারবেন।

ডাউনলোড

 

আরো পড়ুন:  এনক্রিপশন কি? পাবলিক কী এনক্রিপশন কি? বিস্তারিত ব্যাখ্যা

তো কেমন লাগলো আজকের এই পোস্ট? কমেন্ট করে জানাবেন। আমাদের টীম চেষ্টা করে আপনাদের নতুন প্রযুক্তির সম্পর্কে জানাতে , আপনি আমাদের পেজ এ লাইক দিয়ে আমাদের সাথে কানেক্টেড থাকুন। 😎

label,

About the author

One Comment

  1. stomatologia May 27, 2018 Reply

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *