কিভাবে একটি উইন্ডোজ অপারেটিং সিস্টেমে ল্যাপটপ ব্যাটারি হেলথ পরীক্ষা করবেন?

 

ল্যাপটপ ব্যাটারী বা যে কোনও লিথিয়াম-ভিত্তিক ব্যাটারী, আপনি হয়ত এগুলো কোনো সময়  স্থায়ী হয় না এবং আমি জানি আপনিও এটি জানেন। কিন্তু এখানে একটা বিষয় আছে যে প্রক্রিয়া আপনি অনুসরণ করলে আপনিও আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারী দীর্ঘস্থায়ী ব্যবহার করতে পারবেন এবং আপনি আপনার ব্যাটারি লাইফ চেক করতে পারবেন। হ্যালো” প্রিয়” রিডার! আপনাদের সবাইকে TechZoa.com এ স্বাগতম।

ব্যাটারি সাধারণত দুই ধরনের হয়।:- লিথিয়াম-আয়ন এবং লিথিয়াম-পলিমার– যা বিশ্বব্যাপী সব নতুন ল্যাপটপের জন্য প্রধানত ব্যবহৃত হয় এবং যদিও তারা বিভিন্ন প্রযুক্তির সাহায্যে নির্মিত হয়, তারা একই ভাবে কাজ করে। প্রতিটি ব্যাটারি শুধুমাত্র চার্জ এবং স্রাব চক্রের একটি সীমিত সংখ্যা বজায় রাখতে পারে, এই সব ব্যাটারী দিয়ে আপনাদের প্রয়োজনীয় ডিভাইস গুলিকে পাওয়ার দিয়ে থাকে।যেমন: স্মার্টফোনে, ট্যাবলেট , ল্যাপটপ ইত্যাদি। কিন্তু কিছুদিন পর বেশিরভাগ ল্যাপটপ এ পাওয়ার প্রবলেম দেখা দেয় এবং পরবর্তিতে আরও বেশি সমস্যা দেখা যায়।

আপনার ল্যাপটপের ব্যাটারির হেলথ বিষয়ে আপনি উদ্বিগ্ন হলে এবং এটি চেঞ্জ করার আগে আমি কিরকম সময় এটি ব্যাবহার করতে পারবেন, তা অনিশ্চিত হয়ে পড়ে।

একটি ল্যাপটপ এর ব্যাটারি হেলথ কিভাবে পরীক্ষা করবেন?

উইন্ডোজ তার অপারেটিং সিস্টেমে একটি ফিচার্ড দিয়েছে। যার মাধ্যমে আপনি জানতে পারবেন আপনার ল্যাপটপ কর্তবার চার্জ এবং ডিসচার্জ হয়েছে। এই নম্বর যতো বেশি হবে আপনার ব্যাটারী ততো ড্যামেজ হবে।যদি আপনার ল্যাপটপ এর এই নম্বর অনেক বেশি হয়ে থাকে তাহলে আপনার ল্যাপটপ এর ব্যাটারী পরিবর্তন করার সময় হয়েছে।

এই অপশনটি উইন্ডোজ ৮ এবং তার পরবর্তী ভার্শনে এই অপশনটি উল্লেখ রয়েছে। এটি ব্যবহার করতে আপনার উইন্ডোজ এর command prompt ওপেন করতে হবে। এরজন্য আপনার কম্পিউটার এর WIN+R চাপতে হবে এবং এরপর ঐখানে আপনার “CMD” টাইপ করে এন্টার করলে CMD চালু হয়ে যাবে।

command: powercfg /batteryreport

এই কমান্ড দিলে আপনার ব্যাটারী রিপোর্ট রেডি হয়ে যাবে।আপনি এই রিপোর্ট টি আপনার User ফোল্ডার এর বেতর একটি ‘battery report.html’ নাম এর HTML ফাইল তৈরি হয়ে যাবে।আপনি আপনার সি ড্রাইভ এ user ফোল্ডার এ এই ফাইল টি পাবেন। আপনি ফাইলটি ওপেন করলে আপনার ইন্টারনেট ব্রাউসার দিয়ে ওপেন হয়ে যাবে। এটি আপনার ল্যাপটপ এর যাবতীয় ইনফরমেশন শো করবে। এটি আপনার ব্যাটারি ইনফরমেশন শো করবে।যেখানে আপনার ব্যাটারী ফুল ক্যাপাসিটি, আপনার ব্যাটারী কেমন চার্জ দোরে রাখতে পারে এইসব দেয়া আছে।

আপনি আরো দেখতে পারবেন আপনি আপনার ব্যাটারী কতবার চার্জ , ডিসচার্জ এবং আপনার ব্যাটারী এর ফুল ব্যবহার হিস্ট্রি, ব্যাটারী ক্যাপাসিটি হিস্ট্রি এবং ব্যাটারি জীবন আনুমানিক।

এই তথ্য আরো হেল্পফুল হতে পারে। এই মাধ্যমে আপনি আপনার ল্যাপটপ কত সময় ধরে ব্যাবহার করছেন। আপনি যদি একটি সেকেন্ড হ্যান্ড ল্যাপটপ কিনতে চান তাহলে আপনি জানতে পারেন সে ল্যাপটপটি কত দিন ধরে ব্যবহার করছে এবং আপনি জানতে পারবেন তোর ল্যাপটপ এর ব্যাটারী কোন অবস্থায় আছে।

আরো পড়ুন:  আপনার Android ডিভাইস থেকে পিসিতে ইউটিউব নিয়ন্ত্রণ করুন সহজেই!

মানুষ সবসময় ভাবে ল্যাপটপ কি চার্জ দেয়ার সময় ব্যবহার করা উচিত না কি।তো আমি আপনাকে একটা সিক্রেট করা বলি😜। লিথিয়াম-বেসড ব্যাটারী কখনো ওভারচার্জ হয় না। যদি আপনি আপনার ল্যাপটপ এ চার্জার প্লাগিন করে রাখেন তাও ওভারচার্জ হবে না। কারণ যখন এটি চার্জ করা হয় (100%), আপনার ল্যাপটপ এর বেতর ইন্টারনাল সার্কিট আপনার ব্যাটারী কে চার্জ সিস্টেম বন্ড করে দেয়।

যাইহোক, শুধু ল্যাপটপ এর চার্জার প্লাগইন করে রাখলেই ব্যাটারী ক্ষতি হয় না! আজকের জন্য এতোটুকু ছিল। পরবর্তীতে অন্য টিপস-এন্ড-ট্রিকস নিয়ে হাজির হব। আপনি যদি আমাদের ওয়েবসাইটের পোস্টগুলো পছন্দ করে থাকেন তাহলে নিচে কমেন্ট করতে ভুলবেন না। আর যদি আপনার কোন প্রশ্ন থেকে থাকে তাহলে কমেন্টে জানাবেন। আমি answer করতে চেষ্টা করব।

label,

About the author

Add a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *